অনুশকাকে কি তালাক দিবেন বিরাট!

বলি অভিনেত্রী অনুশকা শর্মা ও ভারতীয় ক্রিকেট দলের অধিনায়ক বিরাট কোহলি -র দাম্পত্য নিয়ে সারা পৃথিবীতে চর্চা চলে ৷ ভারতের এই পাওয়ার কাপল নিজেদের বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়া পোস্টে পাবলিক ডিসপ্লে অফ অ্যাফেকশনও দেখান প্রায়ই৷

আর এই জন্য ফ্যানদের কাছে দারুণ জনপ্রিয় এই দম্পতি ৷ তাদের দেখেই মোটিভেটেড হয় এখনকার তরুণ প্রজন্ম৷ কিন্তু এরমধ্যে সকলকে চমকে দিয়ে বিজেপির বিধায়ক দাবি করেছেন অনুশকা দেশদ্রোহী কিন্তু বিরাট নন, তাই তিনি যেন তার বিবাহিত স্ত্রীকে তালাক দিক৷

বিজেপির বিধায়ক নন্দকিশোর গুর্জর একটি সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে জানিয়েছেন, ‘বিরাট কোহলি দেশভক্ত, দেশের জন্য খেলেন, তার তাড়াতাড়ি অনুশকাকে তালাক দিয়ে দেওয়া উচিত৷ কারণ এই বিষয়ে না তার কোনও ভূমিকা রয়েছে, না এই ধরনের বিষয়ে উনি যুক্ত থাকেন ৷ ’

অবশেষে কি বিয়ে করছেন সালমান খান!!!

নন্দ কিশোর গুর্জরের বক্তব্য, অনুশকা যে ওয়েব সিরিজ বানিয়েছেন তা দেশদ্রোহের ঘটনা৷ এর জন্য অনুশকার ওপর আইনি পদক্ষেপ নেওয়া উচিত৷ এর আগে ওয়েব সিরিজ পাতাল লোকের জন্য আইনি পদক্ষেপ নেওয়ার কথা বলেছিলেন ৷

পাতাললোক ওয়েব সিরিজে বালকৃষ্ণণ বাজপেয়ী নামের এক চরিত্র যে অন্যায়ের সঙ্গে যুক্ত তার বিবরণ দিতে গিয়ে অন্য বিজেপি নেতার ছবি দেখানো হয় ৷ আর সেই ছবিটি তারই৷ তার সাফ দাবি, তাদের একাধিক নেতার ছবি কী করে পাতাললোক ওয়েব সিরিজে দেখানো হয়েছে ৷

তিনি বলেছেন , কী করে জাতি-ধর্ম শেষ করে দেওয়া অনৈতিক কাজ দেখানো ওয়েব সিরিজে এভাবে ছবি ব্যবহার করা হয়েছে৷ এই পাতাললোক সিরিজের প্রযোজনায় যেহেতু অনুশকা শর্মা তাই তাঁর অনুমতিতেই এসব হয়েছে এবং তিনি দেশদ্রোহের কাজ করেছেন ৷

আর এই ধরনের দেশদ্রোহী মেয়ের সঙ্গে সংসার করা উচিত নয় বিরাটের আর তাকে দ্রুততার সঙ্গে ডিভোর্স দেওয়া উচিত ভারতীয় ক্রিকেট দলের অধিনায়কের বলে দাবি বিজেপি নেতার৷

সঠিক সময়ে সঠিক তথ্য পেতে চান? 

এই বিষয়ে কোনো  প্রশ্ন থাকলে কমেন্ট এ জানাতে পারেন। আমরা আপনাকে সঠিক তথ্য দিব।   

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *